উক্তি

স্বাধীনতা দিবসের নতুন ফেসবুক স্ট্যাটাস, স্বাধীনতা দিবসের কবিতা –

স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে আমরা এখানে কিছু নতুন নতুন এসএমএস সংগ্রহ করেছি। যেগুলো আপনারা ইতিমধ্যে অনলাইনে পাবেন না এ ধরনের সেরা কিছু এসএমএস পেতে আমাদের এই ওয়েবসাইটে ভিজিট করুন। মহান স্বাধীনতা দিবসে এই দিনটিতে আপনি আপনার পরিবার সহ আপনার সহপাঠীদের বা বন্ধু-বান্ধবীদের মাঝে মহান স্বাধীনতা দিবসের এস এম এস গুলো ডাউনলোড করে নিয়ে পাঠাতে পারেন। এছাড়াও অনলাইন অর্থাৎ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে এসএমএস আপলোড করতে পারেন।

স্বাধীনতা দিবসের ফেসবুক স্ট্যাটাস

২৬ শে মার্চ স্বাধীনতা দিবস বাঙালি জাতির জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি দিন। এই দিন পৃথিবীর বুকে বাংলাদেশ নামে একটি স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়। তাই বাঙালি জাতীয় জীবনে এই দিনটি অত্যন্ত আনন্দদায়ক এবং খুশির দিন। আপনি যদি স্বাধীনতা দিবস উদযাপন উপলক্ষে বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ায় স্বাধীনতা দিবসের ফেসবুক স্ট্যাটাস দিতে চান তাহলে এই পোস্ট থেকে স্বাধীনতা দিবসের ফেসবুক স্ট্যাটাস গুলো ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

3..প্রশ্নবিদ্ধ স্বাধীনতাকে উত্তরে মেলাবার আজই তো সময়, লক্ষ কন্ঠে সোনার বাংলায় খুঁজে পাই প্রাণের আস্বাদ। সবাইকে মহান বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা।

2..আপনার সম্মান তখন বাড়বে। যখন বিদেশে গিয়ে আপনি নিজের দেশের সম্মান বাড়াতে পারবে। আর গর্বিতভাবে বলতে পারবেন, আমি বাংলাদেশী।

1..আপনার দেশের অসম্মান হলে। তাই সর্বদা দেশকে সম্মান করুন এবং দেশের সম্মান রক্ষায় ব্রতী থাকুন। সবাইকে বিজয় দিবস উপলক্ষে লাল সবুজের শুভেচ্ছা।

1..১৬ই ডিসেম্বর তুমি বাঙালির অহংকার। তুমি কোটি জনতার বিজয় নিশান, স্বাধীন বাংলার স্বাক্ষর।

2..১৬ই ডিসেম্বর, তুমি মহা বিজয়ের মহা উল্লাস। তুমি বিধবা মায়ের বন্দী শ্বাসের শান্তির নিঃশ্বাস।

3..প্রথম বাংলাদেশ আমার, শেষ বাংলাদেশ। জীবন বাংলাদেশ আমার, মরণ বাংলাদেশ…।” সকলকে মহান বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা।

4..সব ক’টা জানালা খুলে দাও না! আমি গাইবো, গাইবো বিজয়েরই গান। ওরা আসবে চুপি চুপি যারা এই দেশটাকে ভালোবেসে দিয়ে গেছে প্রাণ…

5..১টি যুদ্ধ, ৯টি মাস, ৭জন বীরশ্রেষ্ঠ, ১টি দেশ। সকলকে মহান বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা।

6..লাল এর মাঝে ভালবাসা। সাদা এর মাঝে বন্ধুত্ব। নীল এর মাঝে কষ্ট। কালো এর মাঝে অন্ধকার। আর সবুজের মাঝে আমার বাংলাদেশ।

7..তোমরা আমাকে রক্ত দাও, আমি তোমাদের স্বাধীনতা দেব।”- নেতাজী সুভাষ চন্দ্র বসু

8..দেশের স্বাধীনতা শুধু বীরত্বের মধ্যে দিয়েই অর্জন করা যায় না।“- মহাত্মা গান্ধী

9..স্বাধীনতা মানুষের প্রথম এবং মহান একটি অধিকার।“- মিল্টন

10..এখন যদি কেউ বাংলাদেশের স্বাধীনতা হরণ করতে চায়, তাহলে সে স্বাধীনতা রক্ষা করার জন্যে মুজিব সর্ব প্রথম তার প্রাণ দেবে।
– বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান

11..এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম
– বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান

২৬ শে মার্চ স্বাধীনতা দিবসের ফেসবুক স্ট্যাটাস

একটি বাংলাদেশ তুমি… জনতার, সারা বিশ্বের বিস্ময় তুমি আমার অহংকার।” সারা বিশ্বের বিস্ময় এই বাংলাদেশের জন্য আসুন আমরা সবাই মিলে কাজ করি। স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীতে এটাই হোক আমাদের শপথ।

২৬শে মার্চ তুমি নও শুধু একটি তারিখ। নও একটি স্মৃতি চিহ্ন, তুমি লাখো শহীদের রক্তের প্রতিক। তুমি চির বঞ্চিতের হুংকার,আবার তুমিই দিয়েছো চির শান্তি, ৩০ লক্ষ শহীদ আত্মার।

স্বাধীনতা দিবসে মন …
খুশিতে উচ্ছ্বসিত !
স্বাধীন দেশের জন্মলগ্নে
চঞ্চল হয় চিত্ত !
সবাইকে স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা

২৬ মার্চ তুমি একটি উজ্জ্বল নক্ষত্র। বাংলা মায়ের আকাশ পাড়ে, তোমার জন্যই আজি বইছে আনন্দ, উল্লাস স্নেহ মাখা বাংলার হৃদয় জুড়ে। সকলকে মহান স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা।

একটি বাংলাদেশ তুমি… জনতার, সারা বিশ্বের বিস্ময় তুমি আমার অহংকার।”” সারা বিশ্বের বিস্ময় এই বাংলাদেশের জন্য আসুন আমরা সবাই মিলে কাজ করি। মহান স্বাধীনতা দিবসের এটাই হোক আমাদের শপথ।

স্বাধীনতা দিবসে মন …
খুশিতে উচ্ছ্বসিত !
স্বাধীন দেশের জন্মলগ্নে
চঞ্চল হয় চিত্ত !
সবাইকে স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা

প্রথম বাংলাদেশ আমার শেষ বাংলাদেশ জীবন বাংলাদেশ আমার মরণ বাংলাদেশ…” আমাদের জীবন-মরণ এই বাংলাদেশের স্বাধীনতা দিবসে সবাইকে শুভেচ্ছা।

স্বাধীনাতা তুমি ……” মহান স্বাধীনতার জন্য যে সকল অকুতোভয় বীর সন্তানরা বিলিয়ে দিয়েছিলেন তাদের তাজা প্রাণ সে সকল শহীদদের স্মরণে….. সকলকে মহাণ স্বাধীনতা দিবসের অভিনন্দন।

 স্বাধীনতা দিবসের কবিতা

এখানে মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে কিছু সুন্দর সুন্দর স্বাধীনতা দিবসের ছন্দ ও কবিতা আপলোড করেছি। আপনারা চাইলে এখান থেকে আপনার পছন্দমত ছন্দ বা কবিতা ডাউনলোড করে আপনার প্রিয় মানুষটিকে স্বাধীনতা দিবসে এসএমএসের মাধ্যমে পাঠাতে পারেন।

এসো খোকা এসো খুকু
ঘুমিয়ে থেকো না আর
তাকিয়ে দেখ সম্মুখে তোমার
মুক্ত আলোর দুয়ার।

চলো খোকারা চলো খুকুরা
হও প্রাণ উচ্ছল
জাতি হিসেবে স্বাধীন তোমরা
রেখো দৃঢ় মনোবল।

তোমাদের পিতা তোমাদের মাতা
ছিলো এ দেশেরই সন্তান
স্বাধীন করতে এ দেশ তারা
করেছেন জান কোরবান।

তাদেরই আশিস পেয়েছো তোমরা
গড়ে তুলবে এ দেশ
সাজিয়ে দিও বাংলাদেশেরে
প্রাণ করে নিঃশেষ।

বিজয় কেতন

কিচিরমিচির পাখির সুরে উঠোন কোণে বসে
রোজ সকালে খোকন সোনা রঙের হিসাব কষে।
শিশির ভেজা মিষ্টি রোদের মায়ার পরশ মেখে
কিসের ছবি খোকন সোনা যাচ্ছো শুধুই এঁকে!

খোকার হাতে সবার চেনা দুইটা প্রিয় রঙ
কিন্তু মায়ের হয় না বোঝা খোকন সোনার ঠঙ।
ছবির আঁচড় দেখতে কেমন? ঠিক গোলাকার ডিম
তার উপরে আয়তক্ষেত্র দেখেই শরীর হিম!

খোকন সোনা মায়ের চোখে ক্যামনে দেবে ফাঁকি
কিসের ছবি বুঝতে মায়ের রইলো না আর বাকি।
ছবির গঠন দেখেই মায়ের চাঁদের হাসি গালে

ঘুঘু পাখির বিজয়

একটি ঘুঘুর দুইটা ছানা তিড়িং বিড়িং নাচে
দূরের বনে বসতি তাদের শিউলী ফুলের গাছে।
হাসতো রোজই খেলতো রোজই ঘুরতো তারা বনে
বনটা তাদের মায়ের মতোই ভাবনা পুষে মনে।

একদা বনে আসলে শকুন করলো আদেশ জারি
থাকতে বনে রাখবে মনে আমার হুশিয়ারি।
কিন্তু ঘুঘুর বাচ্চা দুটো ভীষণ প্রতিবাদী
থাকবো নাকো রাজার শানে, এক কথা এক দাবি।

শুনেই শকুন চমকে উঠে দেখবো বেটা নবাব
রক্ত আগুন বুলেট ছুড়ে দিবোই কথার জবাব।
দেখবি তখন বুঝবি বাছা মরার কেমন সাধ
ঘুঘু ছানার কণ্ঠে তবু জয়ের প্রতিবাদ।

কিন্তু মায়ের হাজার-বারণ হৃদ মাজারে ভয়
ঘুঘু ছানার কণ্ঠে তবু জয় বাংলা জয়।
ছেলের মায়া প্রাণের মায়া আজকে মাগো থাক
বনটা জুড়ে রক্ত আগুন যুদ্ধে যাবার ডাক।

এমনি করে ঘুঘুর ছানা জয়ের মুকুট পরে
যুদ্ধ শেষে বীরের বেশে ফিরলো মায়ের ঘরে।
সেদিন থেকেই ওই পতাকা লাল-সবুজে আঁকা
বিজয় তুমি দেশ ও জাতির স্বপ্ন কাজলমাখা।

শেষ কথা -মহান স্বাধীনতা দিবস 26 শে মার্চ ইতিহাসের পাতায় এই দিনটি একটি স্মরণীয়। তাই এই দিনটি কি পুরো বাঙালি জাতি অন্তরে লালন করে দেশকে ভালোবেসে স্বাধীনতা দিবসের সুবর্ণজয়ন্তী সঠিকভাবে পালন করতে পারে। এবং পালন করে থাকেন। অনলাইনে যারা একে অপরের কাছে স্বাধীনতা জয়ন্তীর বার্তা পাঠাতে চান তাদের জন্য আজকের এই পোস্ট। ধন্যবাদ।…………………

আরো পড়ুন,

জড়িয়ে ধরা পিক,রোমান্টিকভাবে বুকে মাথা রাখার ছবি ডাউনলোড

ব্লেড দিয়ে হাত কাটার ছবি,ব্যান্ডেজ করা ছবি, হাত কাটা বেন্ডিস পিক

Liton Roy

আমি লিটন রায়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলা বিভাগ হতে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর ডিগ্রি সম্পন্ন করে 2018 সাল থেকে সমাজের অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক, সামাজিক,মানবিক দৃষ্টিভঙ্গি অবলোকন করে- জীবনকে পরিপূর্ণ আঙ্গিকে নতুন করে সাজানোর আশাবাদী। নতুনের প্রতি মানুষের আকর্ষণ চিরস্থায়ী- তাই নবরুপ ওয়েবসাইটে নিয়মিত লেখালেখি করি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *