টিপস

হাজী বিরিয়ানী হাউজ, ঢাকার জনপ্রিয় খাবার – Haji Biryani House

হাজী বিরিয়ানী হাউজ,আসসালামু আলাইকুম আজকে আপনাদের জন্য একটি প্রিয় রেস্তোরাঁ যে রেস্তোরাঁটির নাম ঢাকা শহরে সবার মুখে মুখে এক নামে পরিচিতি হয়ে উঠেছে সেটি হল হাজী বিরিয়ানি রেস্তোর। তাই আজকে হাজি বিরিয়ানি অনেকেই অনেক ধরনের রেস্তোরায় খেয়েছেন অনেক সুনামধন্য হোটেল গুলোতে খেয়েছেন কিন্তু হাজী বিরানি এমন একটি বিরানি হাউস যা আপনার মনকে আর বাহিরে নিয়ে যেতে কখনো চায় না। কারণ হাজী বিরিয়ানি সম্পন্ন মানসম্মত মাশাল্লাহ ব্যবহার করে থাকেন এমন কি যে চারটি ব্যবহার করে থাকেন এটি একটি উন্নতমানের চাল আরো রয়েছে যিনি রান্নার জন্য নিয়োগ প্রদান করেছেন তিনি প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত একজন রান্নার কারিগর।

হাজী বিরিয়ানী হাউজ

হাজী বিরিয়ানি সুনামধন্য নামে পরিচিতি লাভ করেছেন হাজী বিরানি পুরান ঢাকা অবস্থিত। হাজী বিরানি নাম টিযেমনি সুন্দর তেমনি বৃহৎ ঢাকা শহর সুনাম অর্জন করেছেন এটি বাংলাদেশের একটি প্রাচীনতম রেস্তোরাঁ। হাজি বিরানি ১৯৩৯ সাল থেকে মোঃ হোসেন নামে একজন ব্যক্তি এই রেস্তোর াঁটি চালু করেছিলেন পরবর্তী সময়ে ব্যবসার পরিবর্তনের মাধ্যমে পুরো ঢাকা শহরের পরিবেশ সুন্দর হওয়ায় মানুষের চলার পথ উন্নত এবং পরিবেশের ন্যায় এস্তরাটি আরো অন্যতম হয়ে ওঠে।

Haji Biryani House

হাজী বিরানি যেমনি মনকে মন মুগ্ধ করে তুলেছে সকল ঢাকা শহরের মানুষদের এমনকি যারা নতুন বন্ধু বান্ধবীকে নিয়ে ঘুরতে যান এক নামেই বলে থাকেন যে হাজী বিরানি খাব ঠিক তেমনি যেমনি সুন্দর নামটি তেমনি রান্নার স্বাদ তেমনই মনোমধ্যম একটি ঢাকা শহরে অবস্থিত হাজী বিরানি রেস্তোরাঁ।

হাজী বিরিয়ানী শাখা কয়টি

হাজী বিরিয়ানি হাউস দুটি শাখা রয়েছে একটি হলো পুরান ঢাকায় অবস্থিত প্রধান শাখা দ্বিতীয় শাখাটি মতিঝিল কাজী আলাউদ্দিন রোড নজিরা বাজারে অবস্থিত।

বিরিয়ানি রেসিপি উপকরণ সমূহ

যেমন- ছাগলের মাংস, ভাত ,সরিষার তেল ,পিয়াজ ,রসুন ,মরিচ, লবণ ,এলাচ ,জাফরান, দারুচিনি ,লেবু ,দই ,লবণ ,চিনা বাদাম ,ক্রিম, কিসমিস ,এবং সামান্য পরিমাণ সিস। গরু বা মহিষের মাংস ব্যবহৃত হয়। হাজী মোহাম্মদ সায়েদ বলেন আমি আগে যা ব্যবহার করি বিরানি তৈরি করেছি এখনো ওগুলাই ব্যবহার করে থাকে আমি কোন কিছু পরিবর্তন করি না।

হাজীর  বিরিয়ানি মসল 

এখান থেকে আরেকটি জিনিস শিখে নিও যেমনটা হলো এক ইঞ্চি সাইজের দুই টুকরো যাত্রী নিতে হবে এরপরে সাত থেকে আট পিস লবঙ্গ এবং গোল মরিচ নিতে হবে। এরপর ছোট এলাচ ৭ থেকে ৮ টুকরো বড় সাইজের তেজপাতা একটি থেকে দুইটি একটা জয়ফল নিন মাঝারি সাইজের দুই থেকে তিন টুকরা দারুচিনি এরপর সবগুলো নেওয়া হয়ে গেলে কাঁচা অবস্থায় ভালোভাবে গুড়ো করে নিন এর পরে ব্যবহার করতে হবে।

হাজী বিরানি সাধারণত এভাবেই সম্পূর্ণ সঠিকভাবে ব্যবহার করে রান্নাটিকে সুস্বাদু করে তোলেন। হাজি বিরানি সকল মানুষের কাছে সুস্বাদু একটি রান্না বলে মনে করে থাকেন তাই এটি পুরো ঢাকা শহরের সুস্বাদু একটি সবার উপযোগী খাবার।

এভাবে চাইলে আপনারা আপনার বাড়িতে সুন্দর একটি বিরিয়ানি রান্না করতে পারবে।

1.তেজপাতা⇒৩ থেকে ৪ নিন

2.ডাল চিন⇒ ৪ থেকে ৫ টুকরা নিন

3.লং⇒ ৬ থেকে ৭ টি নিন

4.ছোট এলাচ⇒ ৫ থেকে ৬ টুকরা নিন

5.পেঁয়াজ⇒ বড় সাইজে পেঁয়াজ ৪ থেকে ৫ টা নিন

6.রসুন⇒ ১ থেকে ২ টা নিন

7.কাঁচা মরিচ⇒ ৪ থেকে ৫ টা নিন

8.তেল⇒ ১ থেকে দেঁড় কাপ নিন

8.ঘি⇒ সামান্য পরিমাণে নিন

9.মাংস⇒ ১ কেজি খানেক হাড় ছাড়া মাংস নিন।

10.বিরিয়ানি চাল⇒ ৩ কাপ পরিমাণ নিন

আরো পড়ুন,

মেয়েদের প্রপোজ করার কবিতা, এসএমএস, পিকচার

নাবিল পরিবহন কাউন্টার নাম্বার,সময়সূচি,এবং টিকিট বুকিং অফিস

Liton Roy

আমি লিটন রায়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলা বিভাগ হতে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর ডিগ্রি সম্পন্ন করে 2018 সাল থেকে সমাজের অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক, সামাজিক,মানবিক দৃষ্টিভঙ্গি অবলোকন করে- জীবনকে পরিপূর্ণ আঙ্গিকে নতুন করে সাজানোর আশাবাদী। নতুনের প্রতি মানুষের আকর্ষণ চিরস্থায়ী- তাই নবরুপ ওয়েবসাইটে নিয়মিত লেখালেখি করি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *