টিপস

লেবু দিয়ে রূপচর্চা, লেবু দিয়ে ফর্সা হওয়ার উপায় ,লেবু দিয়ে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করার উপায়

লেবু দিয়ে রূপচর্চা লেবু দিয়ে রূপচর্চা সুন্দর হতে কে না চায়? তাই প্রতিদিন প্রতিনিয়ত অনেকেই আছেন যারা তাদের ত্বক ফর্সা করার জন্য নানারকম ক্রিম ,ফেসওয়াস বা বিভিন্ন উপকরণ ত্বকের মধ্যে ব্যবহার করে থাকেন। এসব ক্রিম বা ফেসওয়াস একদিকে যেমন আপনার ত্বকের উজ্জ্বলতা ক্ষণিকের জন্য বৃদ্ধি করবে তেমনি অপর দিকে আপনার ত্বকের ক্ষতি করবে।

লেবু দিয়ে রূপচর্চা

সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে বিভিন্ন উপকরণের মধ্যে লেবু একটি শ্রেষ্ঠ উপকরণ। আদিকাল থেকেই মানুষ লেবু দিয়ে রূপচর্চা করে আসছে। এটি শরীর এবং ত্বকের জন্য সমান উপকারী। ভিন্নভাবে লেবু দিয়ে আমরা রূপ চর্চা করতে পারি। চর্মরোগ বিভাগের অধ্যাপক বলেন, সৌন্দর্যচর্চায় লেবুর উপকার পেতে হলে ত্বকে লেবু ব্যবহারের পাশাপাশি লেবু খেতেও হবে ।
এবার চলুন জেনে নিই, লেবু দিয়ে রূপচর্চা কীভাবে করা যায়।

লেবু দিয়ে ফর্সা হওয়ার উপায় /লেবু দিয়ে রূপচর্চা

লেবু দিয়ে ফর্সা হওয়ার উপায়

ত্বকের সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে লেবুর কোনো বিকল্প নেই। কমলালেবু দিয়ে রূপচর্চা করার কথা আমরা অনেকই জানি। তবে পাতি লেবু দিয়ে রূপচর্চা ম্যাজিকের মতো কাজ করে।

উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করতে লেবু:
ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধিতে লেবু দারুণ কার্যকরী।
১ চামচ লেবুর রসের সাথে ১চামচ কাঁচা দুধ আর সামান্য চিনি মিশিয়ে মুখে লাগিয়ে ৫ মিনিট রাখুন। তারপর স্ক্রাব করে ধুয়ে ফেলুন। নিয়মিত চর্চায় আপনার ত্বক উজ্জ্বল হয়ে উঠবে।

ত্বকের ব্ল্যাক হেডস দূর করে লেবু:
ত্বকের ব্ল্যাক হেডস দূর করতে লেবু একটি চমৎকার উপাদান। রাতে ঘুমানোর আগে ব্ল্যাক হেডস আক্রান্ত স্থানে লেবুর রস লাগিয়ে রাখুন। সকালে ঘুম থেকে ওঠার পর ঠান্ডা পানি দিয়ে পরিস্কার করে নিন। ব্ল্যাক হেডস দূর হয়ে যাবে।

কালো দাগ দূর করে:
লেবুতে আছে সাইট্রিক এসিড যা ত্বকের কালো দাগ দূর করে ত্বক কে পরিস্কার রাখে। আপনার ত্বকের ছোপ অথবা কালো দাগ আক্রান্ত স্থানে লেবুর রস ম্যাসাজ করুন। লেবুর রস ছোপ দূর করতে অত্যন্ত কার্যকর।

নখের পরিষ্কার করতে:
অনেক সময়ে কাজ করতে গেলে নখে বা পায়ে ময়লা দেখা যায়। তখন যদি সাথে সাথে একটা লেবু কেটে ভাল করে পরিস্কার করে নেয় । তাহলে নখের মধ্যে দাগ নিমিশে পরিস্কার হয়ে যাবে।

ব্রণ সারতে লেবু:
আমরা অনেকেই ব্রণের সমস্যায় ভুগে থাকি। ব্রনের চিকিৎসায় লেবুর কার্যকারিতা অনেক।
১চা চামচ লেবুর রসের সাথে সামান্য পরিমাণ পানি মিশিয়ে ব্রন আক্রান্ত স্থানে লাগিয়ে নিন এবং ১০ মিনিট পর ঠান্ডা পানি দিয়ে ব্রন আক্রান্ত স্থান টি পরিস্কার করে নিন।

শুষ্কতা দূর করতে লেবু:
আপনার ত্বক যদি শুষ্ক হয় তবে লেবু ব্যবহার করুণ। এক্ষেত্রে সমপরিমাণ লেবুর রস, মধু, এবং অলিভ অয়েল একত্রে মিশিয়ে মিক্সচার তৈরী করে মুখে লাগিয়ে রাখুন। ১০মিনিট পর ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এটি নিয়মিত ব্যবহার করলে ত্বক নরম এবং হাইড্রেট থাকে।

বলিরেখা দূর করে লেবু:
লেবু বলিরেখা দূর করতে সাহায্য করে। ১চা চামচ লেবুর রস এবং সামান্য পরিমাণ মধু এক সাথে মিশিয়ে মুখে লাগিয়ে রাখুন। ১৫ মিনিট পর ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এই মিশ্রনটি ত্বকের ফাইন লাইনস হ্রাস করে এবং ত্বকে তারুণ্য ফিরিয়ে আনে।

ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করার উপায়

ঘরোয়া পদ্ধতিতে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করার উপায় আজকের পোস্টটি শুরু করার আগে সকলকে জানাতে চাচ্ছি আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। আশা করি সকলেই ভাল আছেন। আজকে আমরা নতুন আর একটি পোস্ট নিয়ে আলোচনা করব। আজকের পোস্টটি হচ্ছে আপনারা কিভাবে ঘরোয়া পদ্ধতিতে ত্বকের উজ্জ্বলতা রক্ষা করবেন। তো কথা না বাড়িয়ে শুরু করা যাক।

ত্বকের উজ্জ্বলতা ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করতে কে না চায় ? আপনি কি আপনার মুখের উজ্জলতা হারিয়ে ফেলেছেন বা আপনার মুখে কালো দাগ পড়েছে? আপনার ত্বক রুক্ষ বর্ণ ধারণ করেছে তাহলে আপনাদের চিন্তার কোন কারণ নেই। এখন আপনারা ঘরে বসেই তার সমাধান করতে পারবেন।

তাহলে জেনে নিন কিভাবে ঘরোয়া পদ্ধতিতে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করার উপায়। হেমন্তের হাওয়ায় দিন গুলো যখন আমাদের কাছ থেকে চিরবিদায় নিয়ে চলে যায় তখন শীতের আমেজ এসে ছোঁয়া দিচ্ছে আমাদের শরীরে।শীতের দিনে গরম অনুভূত হলেও রাতে হিম ঝরে পরে সবুজ ঘাসে। প্রকৃতির এমন পালাবদলে ত্বকেরও প্রয়োজন হয় আগাম যত্নের। কেননা অযত্ন অবহেলা কারণে আমাদের ত্বক হয়ে পড়ে খসখসে স্পর্শকাতর’ প্রাণহীন।

ত্বক হারিয়ে ফেলে তার উজ্জ্বলতা তাই ত্বকের যত্ন নেওয়া বিশেষ প্রয়োজন । ঘরোয়া পদ্ধতিতে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করার উপায় জানতে ইচ্ছুক? সেই আদি যুগ থেকেই মানুষের গায়ের রং নিয়ে নানান রকম কথাবার্তা ও সম্মেলচনা অনেকেরই। সকলেই চায় একটি সুন্দর ফর্সা ত্বক।তাইতো দিন দিন বেড়েই চলেছে ত্বক ফর্সাকারী ক্রিমের কদর। কিন্তু এসব ক্রিম দিয়ে সত্যিই কি গায়ের রং ফর্সা হয়?

এসব ক্রিম দিয়ে মুখের রং সামান্যতম উজ্জ্বল হলেও আমাদের পুরো শরীরের ত্বক দ্বারা আবৃত তাই না। তাছাড়া বর্তমানে পার্লারগুলোতে রয়েছে নানান রকম ত্বক ফর্সাকারী ক্রিম। আসলে সকল ক্রিম দিয়ে ক্ষণিকের জন্য ত্বক ফর্সা হলেও এতে রয়েছে অনেক পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া যা আমাদের শরীরের ত্বকের জন্য অন্তত ক্ষতিকর। সুতরাং ত্বকের ঔজ্জ্বল্য বৃদ্ধি করার জন্য ঘরোয়া উপকরণ ব্যবহার করতে পারেন।

ত্বকের উজ্জ্বলতা ফিরিয়ে আনতে বা বজায় রাখতে ঘরোয়া উপকরণই এখন সৌন্দর্য্য চর্চ্চায় প্রাধান্য পাচ্ছে। ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করার উপায় হিসেবে নানা ধরনের ঘরোয়া ফেসপ্যাক ব্যবহার করা যায়। তবে আপনি চাইলে বাড়িতেই অল্প সময়েই সঠিক পদ্ধতি ব্যবহার করে ত্বকের উজ্জ্বলতা ফিরে পেতে পারেন।

টমেটো ও লেবুর রসের ফেসপ্যাক: অত্যন্ত কার্যকর কিছু ফেসপ্যাক টমাটো ও লেবুর রসের ফেসপ্যাক টমেটোতে রয়েছে প্রচুর মাত্রায় লাইকোপেন নামক একটি উপাদান। যা সব ধরনের ত্বকের দাগ মিলিয়ে দেওয়ার পাশাপাশি মৃত কোষেদের সরিয়ে দেয়।

ফলে ত্বক উজ্জ্বল এবং ফর্সা হয়ে উঠতে সময় লাগে না। ১ – ২টা টমাটো ব্লেন্ডারে ফেলে তার সঙ্গে ২ চামচ লেবুর রস মিশিয়ে পেস্ট বানিয়ে নিতে হবে। এই মিশ্রনটা ভাল করে মুখে লাগিয়ে ২০ মিনিট অপেক্ষা করতে হবে। সময় হয়ে গেলে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ভাল করে ধুয়ে ফেলতে হবে মুখটা।

অ্যালোভেরা ও বাদামের ফেসপ্যাক: অল্প করে অ্যালোভেরা জেল নিয়ে তাতে পরিমাণ বাদাম গুঁড়ো মিশিয়ে একটা মিশ্রন বানিয়ে ফেলুন। তারপর সেই মিশ্রনটি ভাল করে মুখে লাগিয়ে কম করে ১৫ – ৩০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন।

অ্যালোভেরা জেল : ত্বককে ফর্সা করার পাশপাশি নানা রকম স্কিন ডিজিজের প্রকোপ কমাতেও সাহায্য করে। অন্যদিকে, বাদাম গুঁড়ো মুখে জমে থাকা ময়লা এবং ব্ল্যাক হেডস দূর করতে দারুন কাজে আসে।

মধু ও দইয়ের ফেসপ্যাক: পরিমাণ মতো দইয়ে অল্প করে মধু এবং লেবুর রস মিশিয়ে একটা পেস্ট বানিয়ে ফেলুন। তারপর সেই পেস্টটা কম করে ১৫ মিনিট মুখে ম্যাসাজ করুন। সময় হয়ে গেলে মুখটা ধুয়ে নিন। মধু ত্বককে ভেতর থেকে সুন্দর করে তোলে। আর লেবুর রস এবং দুইয়ের মিশ্রনে উপস্থিত ভিটামিন-সি ত্বককে উজ্জ্বল এবং ফর্সা করে তুলতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে।

আমের খোসা এবং দুধের ফেসপ্যাক: গরমকালে রাতের বেলা গরম গরম দুধে আম মিশিয়ে খেতে কী সুস্বাদু লাগে। কিন্তু আপনাদের কি জানা আছে দুধের সঙ্গে আমের খোসার মিশিয়ে ত্বকে লাগালে দারুন উপকার পাওয়া যায়। এক্ষেত্রে পরিমাণ মতো দুধে অল্প করে আমের খোসা মিশিয়ে ভাল করে ব্লেন্ড করে নিতে হবে। তারপর সেই মিশ্রনটা মুখে, গলায় এবং ঘারে লাগিয়ে কিছু সময় রেখে দিয়ে ধুয়ে নিন।

লেবুর রস ও চিনির ফেসপ্যাক: একটা লেবু থেকে রস সংগ্রহ করে তাতে ১ চামচ চিনি মিশিয়ে নিন। তারপর এই মিশ্রনটি ততক্ষণ পর্যন্ত মুখে ঘষতে থাকুন, যতক্ষণ না চিনিটা ত্বকের সঙ্গে একেবারে মিশে যায়। যখন দেখবেন এমনটা হচ্ছে, তখন মুখটা ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে নেবেন। ফর্সা ত্বক পেতে এই ঘরোয়া পদ্ধতিটি দারুন কাজে আসে।

আরো পড়ুন,

ব্লেড দিয়ে হাত কাটার ছবি,ব্যান্ডেজ করা ছবি, হাত কাটা বেন্ডিস পিক

মেয়েদের নিয়ে উক্তি,meyeder-niye-sundor-ukti-বাণী ও কথা

S+R লাভ ফটো ডাউনলোড, RS Love Pic, ইমেজ ছবি Download

i love you SMS,আই লাভ ইউ এসএমএস, রোমান্টিক কথা ,ছবি

Liton Roy

আমি লিটন রায়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলা বিভাগ হতে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর ডিগ্রি সম্পন্ন করে 2018 সাল থেকে সমাজের অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক, সামাজিক,মানবিক দৃষ্টিভঙ্গি অবলোকন করে- জীবনকে পরিপূর্ণ আঙ্গিকে নতুন করে সাজানোর আশাবাদী। নতুনের প্রতি মানুষের আকর্ষণ চিরস্থায়ী- তাই নবরুপ ওয়েবসাইটে নিয়মিত লেখালেখি করি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *