ট্রেন

মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচি ২০২৪,ভাড়া, বন্ধের দিন, অনলাইন টিকেট

প্রিয় পাঠক, অত্যাধুনিক নিবন্ধে আমরা মৈত্রীর এক্সপ্রেস ট্রেন নির্দিষ্ট শিডিউল এবং শেষ দিনের ভাড়া এবং অনলাইন টিকিট সংরক্ষণ ডিভাইস সম্পর্কে কথা বলতে যাচ্ছি। আপনি যদি মৈত্রী এক্সপ্রেস এডুকেট এজেন্ডা টিকিট চার্জের জন্য অনলাইনে অনুসন্ধান করেন তবে এই  নিবন্ধে স্বাগতম।

মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেন হল বাংলাদেশ এবং ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মধ্যে ভ্রমণকারী ট্রেনগুলির মধ্যে একটি। এই শিক্ষা বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা থেকে শুরু হয় এবং ভারতের পশ্চিমবঙ্গের রাজধানী কলকাতায় যাত্রা করে। তাই মৈত্রী নির্দিষ্ট বাংলাকে সংযুক্ত করার একমাত্র শিক্ষা। এই ট্রেনটি বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে ভ্রমণকারী যাত্রীদের মধ্যে খুব জনপ্রিয় হতে পারে যারা রাস্তার সাহায্যে 2টি দেশের মধ্যে ভ্রমণ করে। তাই সর্বশেষ নিবন্ধে আমরা মৈত্রী স্পষ্ট ট্রেনের টাইম টেবিল এবং টিকিটের মূল্য সম্পর্কে কথা বলতে যাচ্ছি।

মৈত্রী এক্সপ্রেস

মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনটি ঢাকা ও কলকাতার মধ্যে একটি নির্দিষ্ট শিক্ষিত সফর। এই বিশ্বব্যাপী সাধারণ শিক্ষিত প্রায়ই বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা এবং পশ্চিমবঙ্গের রাজধানী কলকাতায় ভ্রমণ করে। বন্ধুত্ব শব্দের অর্থ বন্ধুত্ব। এই বন্ধুত্বের প্রতীক হিসাবে, 14 এপ্রিল ২০০৬ সালের বৈশাখের প্রথম দিনে ট্রেনটি ছেড়ে দেওয়া হয়। ঢাকা থেকে কলকাতার মৈত্রী নির্দিষ্ট এখন একেবারে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত। ১৪ এপ্রিল, ২০১৮শুক্রবার সকালে ঢাকা সেনানিবাস স্টেশনে ব্র্যান্ড নিউ রেলওয়ে মন্ত্রী মুজিবুল হক ব্র্যান্ড নিউ ক্যারিয়ারের উদ্বোধন করেন।

মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচি

মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেন হল একটি এক্সপ্রেস শিক্ষা যা ঢাকা এবং কলকাতার মধ্যে ভ্রমণ করে। প্রতি সপ্তাহে ৪ দিন এই পথে ছুটে বেড়ায় এডুকেট। বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা রেলওয়ে স্টেশন থেকে যাত্রা শুরু হয় এবং কলকাতার চিৎপুর স্টেশন পর্যন্ত চলে। আমি মৈত্রী নির্দিষ্ট শিক্ষার অনন্য সময়সূচী দিয়েছি।

দিন যাত্রা স্টেশন গন্তব্য স্টেশন ট্রেন নাম্বার রেক
বুধবার ঢাকা কলকাতা ৩১১০ বাংলাদেশ
শুক্রবার ঢাকা কলকাতা ৩১০৭ বাংলাদেশ
শনিবার ঢাকা কলকাতা ৩১১০ বাংলাদেশ
রবিবার ঢাকা কলকাতা ৩১০৭ বাংলাদেশ
সোমবার কলকাতা ঢাকা ৩১০৮ ভারতীয়
মঙ্গলবার কলকাতা ঢাকা ৩১০৯ ভারতীয়
শনিবার কলকাতা ঢাকা ৩১১০ ভারতীয়
শুক্রবার কলকাতা  ঢাকা ৩১০৯ ভারতীয়

মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনের টিকেট মূল্য

মৈত্রী নির্দিষ্ট শিক্ষার এজেন্ডা নিয়ে আলোচনা করার আগে একটি বিষয় মাথায় রাখতে হবে। যদি আপনি একটি গ্রামীণ ভ্রমণ করতে চান, আপনাকে সেই দেশে অভিবাসনের জন্য একটি ভ্রমণ হার দিতে হবে। তাই আপনার যদি মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনে যাত্রা করতে হয়, তবে ট্যুর বেছে নেওয়া টিকিটের সাথে সংযুক্ত রয়েছে। এই সম্পূর্ণ শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত ট্রেনে যাত্রার টিকিটের জন্য অর্থ প্রদানের জন্য আমি একটি ধারণা নিয়ে আসব। আমরা একটি টেবিলের মাধ্যমে মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেন নির্দিষ্ট ট্রেনের টিকিটের ফি  তুলে ধরেছি।

মৈত্রী এক্সপ্রেস এর ভাড়া কত

etiket railway gov bd -Register, Buy Online Train Ticket – রেলওয়ে টিকেট

>>  ঢাকা থেকে কলকাতাঃ

>>  মৈত্রী এক্সপ্রেস AC কেবিন  = ৪৯০০ টাকা

>>  মৈত্রী এক্সপ্রেস AC চেয়ার  = ৩৬০০ টাকা।।

>>  কলকাতা থেকে ঢাকাঃ

>>  AC কেবিন – ২০১৫ রুপি

>>  AC চেয়ার – ১৩৪৫ রুপি

বাচ্চাদের জন্য 50% কাট মূল্য থাকবে যদি তারা 1 এবং 5 বছরের মধ্যে হয় অন্য কোন ক্ষেত্রে তাদের মূল্য ট্যাগ দিতে হবে। বয়স পাসপোর্টের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ নির্ধারণ করা হয়। ঠিক এখানে এটি গ্রিনব্যাক হিসাবে দেখানো হয়েছে তবে কিছু অতিরিক্ত বা অনেক কম হতে পারে কারণ ডলারের চার্জ ট্রেড হতে পারে তবে এটি কম বা বেশি স্পর্শ হতে চলেছে।

মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনের অনলাইন টিকেট

মৈত্রী নির্দিষ্ট ট্রেনের টিকিট অনলাইনে বুক করা সম্ভব। বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা থেকে মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনে ভ্রমণ করতে, আপনি বাংলাদেশ রেলওয়ে ই-প্রাইস ট্যাগ ইন্টারনেট সাইট ব্যবহার করে অনায়াসে টিকিট কিনতে পারেন।

আরো পড়ুন,

দোলনচাঁপা এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী, টিকেট ও ভাড়ার তালিকা

সান্তাহার টু লালমনিরহাট ট্রেনের সময়সূচী, টিকেট ও ভাড়ার তালিকা

Liton Roy

আমি লিটন রায়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলা বিভাগ হতে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর ডিগ্রি সম্পন্ন করে 2018 সাল থেকে সমাজের অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক, সামাজিক,মানবিক দৃষ্টিভঙ্গি অবলোকন করে- জীবনকে পরিপূর্ণ আঙ্গিকে নতুন করে সাজানোর আশাবাদী। নতুনের প্রতি মানুষের আকর্ষণ চিরস্থায়ী- তাই নবরুপ ওয়েবসাইটে নিয়মিত লেখালেখি করি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *