ইসলামিক কথা

ইসলামিক ছোট উক্তি ,ছোট ইসলামিক বানী, সেরা ইসলামিক উক্তি

Islamic short quotes

আসসালামু আলাইকুম প্রিয় পাঠক বন্ধুগণ আশা করি আপনারা সবাই ভাল আছেন। আমাদের ওয়েবসাইট এর পক্ষ থেকে আপনাদের সকলকে স্বাগতম।আমরা আপনাদের সবার জন্য ইসলামের ছোট ছোট উক্তি ও ইসলাম নিয়ে সামগ্রিক আলোচনা করবো।আশা করি আমাদের লেখাটি সবার ভালো লাগবে।

ইসলাম অর্থ শান্তি ইসলাম মানেই শান্তির পথে চলা। ইসলাম এমন একটি ধর্ম বা যা জীবন বিধান যা মানুষের সামাজিক ও রাষ্ট্রীয় জীবনে সকলকে সঠিক পথে চলতে সাহায্য করে। ইসলাম একটি পরিপূর্ণ জীবন বিধান। মানুষের সুন্দর জীবন পরিচালনার জন্য এমন কোনো নিয়মনীতি কথা উল্লেখ নেই যা ইসলামে বলা হয়নি। ইসলাম মানুষকে শান্তির পথে চলতে শেখায়। ইসলাম অনুযায়ী জীবন পরিচালনা করলে কোন মানুষ কখনো পথভ্রষ্ট হবে না। ইসলাম মানুষের জীবনের সব রকম সমস্যার সমাধান এনে দিয়েছে। পৃথিবীতে একমাত্র শ্রেষ্ঠ ধর্ম হলো ইসলাম কেননা ইসলাম মানুষকে পরিপূর্ণ জীবন বিধান দান করেছে। ইসলামিক বিধান অনুসারে জীবন পরিচালনা করলে কোন মানুষ কখনো অন্যায় বা খারাপ কাজে লিপ্ত হতে পারবে না। ইসলামিক আদর্শ মতো জীবন পরিচালনা করলে মানুষ সব রকম অন্যায় পাপ কাজ থেকে দূরে থাকবে।

  ইসলামিক ছোট উক্তি – বানী 

অনেকেই আছে যারা অনলাইনে ছোট ছোট ইসলামিক বাণী খুঁজছেন তাদের জন্য আমাদের আজকের এই পোষ্ট। বন্ধুরা আজ আমরা আপনাদের জন্য ছোট ছোট ইসলামিক বাণী নিয়ে হাজির হয়েছি। আমাদের এই বাণী গুলো আপনাদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আপনারা চাইলে আমাদের এই ছোট ছোট বাণী গুলো সংগ্রহ করতে পারেন। কেননা আমরা এখানে এমন কিছু বাণী উল্লেখ করবো যেগুলো আপনাদের ব্যক্তিজীবন সমাজজীবন ও রাষ্ট্রীয় জীবনে কাজে লাগবে। আমাদের এই ইসলামিক বাণী গুলো আপনার ইসলাম প্রচারে সাহায্য করবে। আপনি আমাদের এই বানীগুলো আপনার ফেসবুক বা সোশ্যাল মিডিয়ায় স্ট্যাটাস আকারে পোস্ট করতে পারবেন। আপনার এই শেয়ারের মাধ্যমে হয়তো অনেকের জীবনটা বদলে যেতে পারে। নিচে আমাদের ইসলামিক ছোট ছোট বাণী গুলো তুলে ধরা হলোঃ

নিঃসন্দেহে পৃথিবীতে সবচেয়ে শ্রেষ্ঠতম ধর্ম হলো ইসলাম। ইসলাম মানুষকে সঠিক পথে চলতে সাহায্য করে।ইসলামে দুনিয়ার জীবন ও আখিরাতের জীবন সম্পর্কে পূর্ণাঙ্গ ধারণা দেওয়া আছে। ইসলাম মানুষকে আল্লাহ ও তাঁর রাসূল কে চিনতে শিখিয়েছে। তাই আমাদের সবার উচিত ইসলামিক বিধান অনুসারে জীবন পরিচালনা করা।

সেরা ইসলামিক উক্তি

১. তোমার কথা ও কাজের প্রতিটি ক্ষেত্রে আল্লাহর সূক্ষ্ম দৃষ্টির কথা স্মরণ রাখবে। জেনে রাখ আল্লাহ্‌ তোমাকে দেখেন এবং তোমার হৃদয়ের গোপন খবরও তিনি জানেন।…

২. আল্লাহর প্রতি, তাঁর ফেরেশতাকুল, কিতাবসমূহ, নবী-রসূলগণের প্রতি এবং শেষ দিবস ও তকদীরের ভাল-মন্দের প্রতি দৃঢ়ভাবে ঈমান পোষণ করবে।…

৩. বিনা দলীলে কারো তাক্বলীদ বা অন্ধ অনুকরণ করবে না।…

৪. ভাল কাজে প্রতিযোগিতা করবে।…..

৫. (রিয়াযুস্‌ সালেহীন) কিতাবটি সংগ্রহ করবে। নিজে পড়বে পরিবারের অন্যদেরকেও পড়ে শোনাবে। ইমাম ইবনুল কাইয়েমের (যাদুল মাআদ) গ্রন্থটিও সংগ্রহ করার চেষ্টা করবে। (কিতাব দুটি বাংলায় পাওয়া যায়।….

৬. প্রকাশ্য-অপ্রকাশ্য সকল নাপাকি থেকে সর্বদা পবিত্র থাকবে।…

৭. জামাতের সাথে মসজিদে গিয়ে প্রথম ওয়াক্তে নামায আদায় করতে সচেষ্ট থাকবে। বিশেষ করে এশা ও ফযর নামায।…

৮. দুর্গন্ধযুক্ত খাদ্য পরিত্যাগ করবে। যেমন- কাঁচা পিয়াজ, কাঁচা রসূন। এবং ধুমপান করে নিজেকে এবং মুসলমানদেরকে কষ্ট দিবে না।…

৯. জামায়াতের বিশেষ ফজিলত হাসিলের লক্ষ্যে সর্বদা জামায়াতে নামায আদায় করবে।…

১০. ফরয যাকাত আদায় করবে। যাকাত দেয়ার ক্ষেত্রে হক্বদারেদের ব্যাপারে কৃপণতা করবে না।…

১১. আগে ভাগে জুমআর নামাযে যাওয়ার চেষ্টা করবে। দ্বিতীয় আযানের পর মসজিদে আসার অভ্যাস পরিত্যাগ করবে।…

১২.ঈমানের সাথে আল্লাহর নিকট প্রতিদান পাওয়ার আশায় রমযানের রোযা পালন করবে। এর মাধ্যমে তোমার পূর্বাপর যাবতীয় পাপ ক্ষমা করে দেয়া হয়।…

১৩. শরীয়ত সম্মত কোন ওজর ব্যতীত রমযান মাসের কোন একটি রোযাও পরিত্যাগ করবে না। অন্যথা গুনাহগার হয়ে যাবে।…

১৪. রমযানের রাতগুলোতে কিয়াম করবে বিশেষ করে লায়লাতুল ক্বাদরে-ঈমান ও প্রতিদানের আশায় কিয়াম করবে। যাতে করে তোমার পূর্বকৃত পাপসমূহ ক্ষমা করে দেয়া হয়।…

১৫. যদি সামর্থবান হয়ে থাক তবে দ্রুত হজ্ব-ওমরার উদ্দেশ্যে বায়তুল্লাহর দিকে সফর কর। দেরী করা থেকে সাবধান হও।…

১৬. পবিত্র কুরআন অর্থসহ পড়ার চেষ্টা কর। কুরআনের আদেশ পালন কর, নিষেধ থেকে দূরে থাক। যাতে করে প্রভুর দরবারে কুরআন তোমার পক্ষে দলীল হয় এবং কিয়ামত ময়দানে তোমার জন্য সুপারিশ করে।…

ইসলামিক ছোট উক্তি

এখানে আমরা আপনাদের জন্য ইসলামিক ছোট ছোট উক্তি নিয়ে আলোচনা করব। আপনাদের সবার সুবিধার জন্য আমরা ইসলামিক ছোট ছোট অনেক উক্তি কালেক্ট করেছি। ইনশাআল্লাহ আমাদের উক্তিগুলো সকলের কাজে লাগবে।নিচে আমাদের ছোট ছোট উক্তি গুলো তুলে ধরা হলোঃ

বর্তমান সময়ে ইসলামের জ্ঞান সম্পর্কে মানুষের সবার কিছুটা হলেও ধারণা আছে। কিন্তু জীবন পরিচালনার ক্ষেত্রে অনেকেরই তেমন কোন ধারণা নেই। মানুষ পার্থিব জীবনের আশায় ইসলামিক জীবন থেকে অনেক দূরে পিছিয়ে আছে। তাদের হয়তো এটা জানা নেই যে ইসলামেই একমাত্র পূর্ণাঙ্গ জীবন বিধান। কারণ ইসলামের জ্ঞান মানুষকে শান্তির পথে চলতে শেখায়। তাই আপনারা যারা সুন্দরভাবে জীবন পরিচালনা করতে চান তারা পোস্টটি ফলো করতে পারেন। আমাদের পোস্টে আপনি অনেক ছোট ছোট ইসলামিক উক্তি পাবেন যেগুলো আপনার বাস্তব জীবনে সাফল্যে এনে দিবে।আপনি চাইলে আমাদের উক্তি গুলো দিয়ে আপনার পরিবার বন্ধু ও পরিচিত জনদের মাঝে ইসলাম প্রচার করতে পারেন। আমাদের উক্তি গুলো হয়তো আপনার অনেক সমস্যার সমাধান দিতে পারে। ইসলাম যেহেতু জীবন বিধান ও শান্তির ধর্ম তাই আমাদের সবার উচিত ইসলামের বিধান অনুসারে জীবন পরিচালনা করা।আল্লাহ তায়ালা সবাইকে ইসলাম বুঝার ও জানার তাওফিক দান করুক। আমিন

➤রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আ’লাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, “দুয়া ছাড়া অন্য কিছু মানুষের তাকদীর (বা ভাগ্যের) পরিবর্তন ঘটাতে পারে না, উত্তম আচরণ ছাড়া অন্য কিছু মানুষের হায়াত বৃদ্ধি করতে পারে না। আর মানুষের পাপের কারণে তাকে রিযক হতে বঞ্চিত রাখা হয়।” —সুনানে ইবনে মাজাহ, মিশকাতঃ ৪৯২৫

➤আল হাদিস
”মহানবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন, যে কোনো ব্যক্তি মহামারীর সময় নিজেকে ঘরে রুদ্ধ রাখবে ধৈর্যসহকারে, সওয়াবের আশায় এবং এই বিশ্বাস নিয়ে যে, আল্লাহ তার ভাগ্যে যা লিখেছেন এর বাইরে কিছুই ঘটবে না, সে শহীদের মর্যাদা ও বিনিময় লাভ করবে।”

➤বুখারী শরীফের শ্রেষ্ঠ ব্যাখ্যাকার হাফেজ ইবনে হাজার আসকালানি এই হাদীসের ব্যাখ্যায় লেখেন, ধৈর্য সহকারে, সওয়াবের আশায় ও আল্লাহর উপর ভরসা- এই তিনটি বিষয় ধারণ করে যে ব্যক্তি মহামারীর সময় ঘরে থাকবে, তিনি শহীদের মর্যাদা পাবেন। মহামারীতে তিনি মারা যান অথবা নাইবা মারা যান।
—ফতহুল বারী শরহে বুখারী, ১৯৪/১০।

➤ইসলামের শ্রেষ্ঠত্ব বর্ণনা করলে কিছু লোক বলে, তুমি যদি হিন্দুর ঘরে জন্মগ্রহণ করতে তাহলে তুমি নিশ্চয়ই তাদের শ্রেষ্ঠত্ব বর্ণনা করতে। তাদের কথা এত অসাড় তা কুরআন যে পড়েছে, বুঝেছে সে বলে দিতে পারবে। কি হতে পারত, কি পারত না, তার আগে বলো যে ই হচ্ছে, কি হয়েছে! অন্ধকারে ঢিল মেরে তারা তাদের দাবী প্রমাণ করতে চায় নাকি?…..

ছোট ইসলামিক উক্তি/বানী

১। কখনো কখনো মানুষ আপনাকে বয়কট করবে, দূরে সরিয়ে দিবে, তবে এগুলোকে পার্সোনালি নিয়ে ভেঙ্গে পড়বেন না। কারণ আল্লাহ সুবহানাহু তা’আলা হয়তো ওদের দিক থেকে দূরে সরিয়ে তাঁর নিজের দিকেই আপনাকে ডাকছেন।

—- ড. বিলাল ফিলিপ্স

2। আল্লাহর কাছে আপনি প্রার্থনা করা বন্ধ করে দিলে তিনি রাগান্বিত হন। অথচ আদম সন্তানের কাছে কিছু প্রার্থনা করলে সে রেগে যায়।

— ইমাম ইবনুল কাইয়্যিম (রাহিমাহুল্লাহ

3। আপনার দুর্বলতাকে শক্তিতে পরিণত করার ক্ষমতা একমাত্র আল্লাহ্ তা’আলা-ই রাখেন। তাই তাঁর কাছেই প্রার্থনা করুন।

 —ড. বিলাল ফিলিপ্স

4। “কোন ভাই যদি আপনাকে গোপনে কিছু কথা বলে চলে যাবার আগে যদি তা অন্য কাউকে বলতে নিষেধ না করেও থাকেন, তবু কথাগুলো আপনার জন্য আমানাত।

 —উমার ইবনুল খাত্তাব (রাদিয়াল্লাহু আনহু

5। ​”যিনি ছাড়া কোন রব নেই সেই আল্লাহর কসম, যদি আমার কাছে দুনিয়ার সকল স্বর্ণ এবং রৌপ্য থাকতো, আমি সেগুলোর বিনিময়ে হলেও মৃত্যুর পরে যে ভয়াবহতা রয়েছে তা থেকে বাঁচার চেষ্টা করতাম।”​

 —-উমার ইবনুল খাত্তাব (রাদিয়াল্লাহু আনহু

6। “অপরের কষ্ট দূর করার জন্য কষ্ট করার মাঝে রয়েছে মহত্বের প্রকৃত নির্যাস।”

 —- আবু বকর (রাদিয়াল্লাহু আনহু

৭।নিজেই প্রতিশোধ নিও না, আল্লাহর জন্যঅপেক্ষা কর। তাহলে তিনি তোমাকে রক্ষা করবেন।
— হযরত সুলাইমান (আঃ)

৮।রাসূলুল্লাহ সাঃ বলেছেনঃ তোমরা (অযাচিত) পার্থিব সম্পদ প্রহন করো না। কেননা, এর দ্বারা তোমরা দুনিয়ার প্রতি আসক্ত হয়ে পড়বে।
— তিরমিজি, হাদিস নং ২৩২৮

নিশ্চই আল্লাহ তা’আলা সকল ব্যথিত ও চিন্তিত অন্তরকে ভালোবাসেন।
— শু’আবুল ঈমান-৮৬৬

৯।যে রব (আল্লাহ্‌) গতকাল আপনার জন্য যথেষ্ট ছিলেন, তিনি আগামীকালও আপনার জন্য যথেষ্ট হবেন।
— শাইখ আলী জাবের আল ফীকি হাফিযাহুল্লাহ

.১০।রাসূলুল্লাহ সাঃ বলেছেন, আমি পুরুষের জন্য নারীর চেয়ে বড় কোন ফিতনা রেখে যাচ্ছি না।
— বুখারী, ৫০৯৬.

১১।যে ব্যক্তি জুমু’আহর দিনে সূরা কাহাফ পাঠ করবে, তাঁর ঈমানের নূর এক জুম’আহ হতে আরেক জুমু’আহ পর্যন্ত বিচ্ছুরিত হতে থাকবে।
— সহীহ আত-তারগীব হা/৭৩৬

১২।দুনিয়াতে পরিচিত হওয়াই প্রকৃত খ্যাতি নয়। আসল খ্যাতি হলো আসমানে পরিচিতি পাওয়া।
— বইঃ নবীজির সাথে.

১৩।রাসূলুল্লাহ সা; বলেছেনঃ যে ব্যক্তি জ্ঞাতসারে তাঁর প্রতিবেশীকে ক্ষুধার্ত রেখে তৃপ্তিভরে খেয়ে রাত যাপন করে, সে আমার প্রতি ঈমান আনেনি।
— তাবরানি-৭৫১

১৪।গুনাহের সাগর আমাকে নিমজ্জিত করে নিয়েছে। ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে ঠেলে দিয়েছে। তবুও আমি আল্লাহর রহমতের আশাবাদী।
— বইঃ আল্লাহর প্রতি সুধারনা.

১৫।বুদ্ধিমান ঐ ব্যক্তি, যে নিজের হিসাব গ্রহন করে এবং মৃত্যুর পরের জীবনের জন্য কাজ করে। আর অক্ষম (নির্বোধ) ঐ ব্যক্তি, যে প্রবৃত্তির অনুসরন করে আর আল্লাহ তা’আলার কাছে অযৌক্তিক আশা করে।
— জামে তিরমিযী ২/৭২

১৬।অতৃপ্ত এই পৃথিবীতে আজ যত আয়োজন, অর্ধেক তাঁর মিথ্যে মায়া, বাকি অর্ধেক প্রয়োজন।
— আবুল হাসানাত কাসিম.

১৭।ইয়া রাব্বী, জান্নাতে যেতে পারি এমন কোন আমল আমার নেই। আবার জাহান্নামে এক মুহূর্ত কাটাতে পারবো এমন শক্তিও আমার নেই।
— মোহাম্মদ জাভেদ কায়সার রাহিমাহুল্লাহ

১৮।যে ব্যক্তি ক্ষতিকারক সিগারেট খাওয়ার অভ্যাস ছেড়ে দেওয়ার খালেস নিয়ত করে, রমাদান তাঁর জন্য অনেক বড় একটা সুযোগ।
— মুহাম্মদ ইবনে উসাইমিন, ১৯/১৮৩.

১৯।যখন তোমারা আল্লাহর কাছে জান্নাত চাইবে তখন জান্নাতুল ফিরদাউস চাইবে।
— মুসনাদে আহমাদে

কথা ছোট ইসলামিক

২০।আমার ভয় হয় খ্যাতির কারণে শেষ পর্যন্ত আল্লাহর কাছে আমাদের কোনো ভালো আমলই থাকবে না।
— আইয়্যুব আস সাখতিয়ানি রাহিমাহুল্লাহ.

২১।আল্লাহ তা-আলার সাথে যখন সম্পর্ক বৃদ্ধি পায়, তখন পেরেশানি থাকে না। আল্লাহর সাথে সম্পর্ক সৃষ্টির বড় উপায় হলো খুব বেশি দোয়া করা।
— মুফতি মুহাম্মদ শফী রহঃ

২২।ছোট ছোট গুনাহকে কখনো হালকা মনে করো না, কেননা সামান্য স্ফুলিঙ্গ থেকেই বড় অগ্লিকান্ডের সূত্রপাত হয়।
— ইবনুল কাইয়্যিম রহঃ.

২৩।আপনার পরিবার কুরবানী দিতে না পারলে লজ্জাবোধ করবেন না। বরং নামাজ না পড়তে পারলে লজ্জাবোধ করুন। নামাজ সবার জন্য ফরজ কুরবানী নয়।

২৪।সবচেয়ে কষ্টকর বিষয় হচ্ছে যখন দেখবেন জান্নাত গোটা দুনিয়ার চেয়ে কয়েকগুণ বড় কিন্তু সেখানে আপনার জন্য কোন জায়গা নেই।.

২৫।আমি যাকে তাঁর প্রাপ্য সম্মানের চেয়ে যতটুকু অতিরিক্ত সম্মান দিয়েছি, সে আমার ঠিক ততটুকু ক্ষতি করেছে।
— ইমাম শাফিয়ি রাহিঃ

২৬।সবচেয়ে উপকারী একটি ঔষধ হলো (দোয়া করতে থাকা) লেগে থাকা।
— আল জাওয়াবুল কাফী, ১১.

২৭।যদি আপনি রোগাক্রান্ত হন, তবে এই রোগ সেই সত্তার কাছ থেকেই এসেছে, যিনি আপনাকে ভালোবাসেন।
— বইঃ বিপদ যখন নিয়ামত ২

২৮।রাসূল সাঃ বলেছেন- মদিনা থেকে ইসলাম ছড়িয়ে পড়েছে, ইসলাম আবার মদিনায় ফিরে আসবে ঠিক যেমন সাপ তাঁর গর্তে ফিরে যায়।
— সহি বুখারী হাদীস নং ১৮৭৬.

২৯।অসহায়াত্ব রবের কাছে প্রকাশ করলে মর্যাদা বৃদ্ধি পায় আর মানুষের কাছে প্রকাশ করলে মর্যাদা হ্রাস পায়।
— শাবিব তাশফি………………………

আরো পড়ুন

রোমান্টিক আবেগি মন,আবেগি মন স্ট্যাটাস,রোমান্টিক কথা, SMS 

আই লাভ ইউ এসএমএস, i love you SMS, রোমান্টিক কথা ,ছবি

নতুন জায়গায় যাওয়া নিয়ে স্ট্যাটাস ,উক্তি, শুভেচ্ছা 

Liton Roy

আমি লিটন রায়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলা বিভাগ হতে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর ডিগ্রি সম্পন্ন করে 2018 সাল থেকে সমাজের অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক, সামাজিক,মানবিক দৃষ্টিভঙ্গি অবলোকন করে- জীবনকে পরিপূর্ণ আঙ্গিকে নতুন করে সাজানোর আশাবাদী। নতুনের প্রতি মানুষের আকর্ষণ চিরস্থায়ী- তাই নবরুপ ওয়েবসাইটে নিয়মিত লেখালেখি করি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *