উৎসব

আশুরা কবে ২০২৩ শুভেচ্ছা, এসএমএস, মেসেজ, স্টাটাস, বাণী, উক্তি

আপনি ২০২৩কি সালে আশুরার কবে সময়সূচি জানেন? অথবা আপনি কি আশুরার তারিখ জানতে চান? তাহলে আপনি একদম সঠিক জায়গায় এসেছেন। আমরা এই অনুচ্ছেদে আশুরার তারিখ এবং আশুরার শুভেচ্ছা এসএমএস মেসেজ স্ট্যাটাস উক্তি এবং বাণী নিয়ে আলোচনা করব। তাই আপনি যদি আশুরার সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানতে চান তাহলে এই অনুচ্ছেদটি আপনার জন্যই।

ইসলাম ধর্মের জন্য আশুরা একটি গুরুত্বপূর্ণ ধর্মীয় দিবস। ইসলাম পঞ্জিকা অনুসারে মহরমের ১০ দিনকে আশুরা বলা হয়। এই দিনটি ইসলাম ধর্মের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ দিন এই দিন নিয়ে সুন্নি ও শিয়াদের মত ভেদাভেদ রয়েছে। ইহুদিরা মুসার বিজয়ে দিনকে স্মরণ করে তারা আশুরা বা রোজা পালন করে। তবে এই মত নিয়ে শিয়াদের মধ্যে পার্থক্য দেখা যায়। তারা মনে করে আশুরা হল কারবালার বিষাদময় একটি ঘটনা।

আশুরাকে সামনে রেখে তারা মিছিল, মাতম ও বিভিন্ন ধরনের অনুষ্ঠান আয়োজন করে। এই দিনটি পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে পালন করা হয় তার মধ্যে পাকিস্তান আফগানিস্তান ইরান ইরাক লেবানন ও বাহরাইন সহ অন্যান্য দেশে ধর্মীয় ভাব গম্ভীর্য এর মধ্যে দিয়ে পালন করা হয়। এই দিনটি নিয়ে সুন্নি সমাজের বিভিন্ন ধরনের মত ভেদাভেদ রয়েছে।

আশুরা ২০২৩ কবে

আসলে একটি পবিত্র শব্দ আসুন তথা দশ শব্দটি থেকে এই আসরে শব্দের উৎপত্তি হয়েছিল ইসলাম ধর্মাবলীরাই এই দিনটি মুনাজাতসহ নানা আচার অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে পালন করে। আসমানী কিতাব বিশ্বাসী ধর্মবাদীদের কাছে এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ দিন। ৬৮০ খ্রিস্টাব্দে তথা৬১ হিজরী ১০ই মহরম। নবী মুহাম্মদ এর দৌহিত্র হুসাইন ইবনে আলী কে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়েছিল তিনি শহীদ হয়েছিলেন তাই ইসলামের কাছে এই দিনটি একটি গুরুত্বপূর্ণ।

আশুরা ২০২৩ (বাংলাদেশ). ৭ আগস্ট সন্ধ্যা থেকে: রবিবার৮ আগস্ট সোমবার সন্ধ্যা পর্যন্ত

আশুরার সরকারি ছুটির তারিখ

আশুরার দিনে প্রত্যেক মুসলমানের রোজা রাখার বিধান রয়েছে। এইজন্য আশুরা উপলক্ষে বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক সরকারি ছুটির ব্যবস্থা আছে। এবছর 2022 সালে আশুরা সরকারের ছুটি নয় আগস্ট মঙ্গলবার। এদিন বাংলাদেশের সকল স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়, অফিস, আদালত বন্ধ থাকবে।

সরকারি ছুটির তারিখ:
মঙ্গলবার, ৯ আগস্ট

আশুরার স্টাটাস ২০২৩

আশুরা ইসলাম ধর্মের একটি গুরুত্বপূর্ণ দিন। মহরমের দশম দিনে পবিত্র আশুরা পালিত হয়। ইসলাম ধর্মের শিয়া এবং সুন্নি সম্প্রদায় এই দিনটিকে বিশেষ মর্যাদা পালন করে। তাই আপনিও আশুরা সম্পর্কে বিশেষ স্ট্যাটাস আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রদান করতে পারেন। তাই এই নিবন্ধে আমরা কিছু স্ট্যাটাস আপনাদের জন্য শেয়ার করলাম।

আমি আপনার এবং আপনার পরিবারের সুখ এবং মঙ্গল জন্য প্রার্থনা করি। আপনারা সবাই একটি সুন্দর বছর এগিয়ে আসুক। শুভ নতুন হিজরি বছর!

হিজরি নববর্ষ শুরু হওয়ার সাথে সাথে আসুন আমরা প্রার্থনা করি যেন এটি এক বছর পূর্ণ শান্তি, সুখ এবং অনেক নতুন বন্ধু পূর্ণ হয়। আল্লাহ আপনাকে নতুন বছর জুড়ে দোয়া করুন। শুভ নতুন হিজরি বছর!

“হিজরি নববর্ষ শুরু হওয়ার সাথে সাথে আসুন আমরা প্রার্থনা করি যে এটি এক বছর শান্তি, সুখ এবং নতুন বন্ধুদের প্রচুর পরিপূর্ণ হয়ে উঠবে। আল্লাহ আপনাকে নতুন বছর জুড়ে মঙ্গল করুন। ”

একজন শহীদ হিসাবে ইমাম হুসেনের মহৎ ত্যাগের জন্য আমার প্রশংসা বজায় রয়েছে, কারণ তিনি মৃত্যু, তৃষ্ণার অত্যাচারকে নিজের, তাঁর পুত্র এবং পুরো পরিবারের জন্য গ্রহণ করেছিলেন কিন্তু অন্যায় কর্তৃপক্ষের কাছে নতি স্বীকার করেননি।”

আপনি আয-এ-হুসেনকে লক্ষ্য করুন এবং করবালের যুদ্ধে ইসলামী নবী মুহাম্মদ (সা।) – এর নাতি ইমান হুসেন ইবনে আলীর স্মরণে শোকের জমায়েত, বিলাপ, মাতামে অংশ নিতে পারেন! একটি বরকতময় মুহররম আছে ”

আশুরার উক্তি

আশুরা সম্পর্কে ইসলামিক কোরআন হাদিসে বেশ কিছু উক্তি রয়েছে। আমাদের এই অনুচ্ছেদ হতে আপনি আশুরার উক্তি গুলো দেখে নিতে পারেন। আমরা এই অনুচ্ছেদে আসলে সম্পর্কিত উক্তিগুলো আপনাদের জন্য শেয়ার করব।

  • **হযরত জয়নাব বিনতে আলী (আ.):

“কারবালায় যা কিছু দেখেছি (ইমাম শিবিরের দিক থেকে ও ইয়াজিদ শিবিরের মোকাবেলায়) তাতে সৌন্দর্য বা সর্বোত্তম বিষয় ছাড়া অন্য কিছু দেখিনি।”

  • **বালক বীর হযরত কাসিম বিন হাসান (আ.):

‘ন্যায় ও সত্যের পথে মৃত্যু বরণ আমার কাছে মধুর চেয়েও মিষ্টি’

  • **কারবালার অন্যতম শ্রেষ্ঠ শহীদ হযরত সাঈদ বিন আবদুল্লাহ হানাফি (রা.):

আশুরার পূর্বরাতে ইমামের পক্ষ থেকে পালানোর অনুমতি পাওয়া সত্ত্বেও  বললেন, প্রিয় ইমাম ! খোদার কসম আপনাকে রেখে আমরা কোথাও যাবো না । আপনার জন্যে যদি নিহত হই এবং জীবন্ত দগ্ধ হই এবং তা যদি ৭০ বারও হয় তবুও আমি আপনাকে ছেড়ে যাব না । আপনি মরে যাবেন আর আমরা বেচে থাকব এ কি করে হয় !

**কারবালার অন্যতম শ্রেষ্ঠ শহীদ যুহাইর ইবনে কাইন (র.):

ন্যায়বিচার ও সত্যকে বাঁচিয়ে রাখতে অস্ত্র ছাড়াই বিজয় আসতে পারে জীবন উৎসর্গ করার মাধ্যমে, ঠিক যেভাবে বিজয়ী হয়েছেন ইমাম হোসাইন। ইমাম হোসাইন মানবতার নেতা। ইমাম হোসাইন শীতলতম হৃদয়কেও উষ্ণ করেন। হোসাইনের আত্মত্যাগ আধ্যাত্মিক স্বাধীনতাকে তুলে ধরে।———–রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

ইমাম হোসাইন (রা.)’র শোক মজলিসে বলা হয় যে, তিনি মানুষের মর্যাদাকে অক্ষুণ্ণ রাখা এবং ইসলামের উচ্চ মহিমাকে অক্ষুণ্ণ রাখার জন্য জান, মাল ও সন্তানদেরকে উৎসর্গ করেছেন। তিনি ইয়াজিদের সাম্রাজ্যবাদ ও ছল-চাতুরীকে মেনে নেননি। তাই আসুন, আমরাও তাঁর এ পন্থাকে আদর্শ হিসেবে গ্রহণ করি এবং সাম্রাজ্যবাদীদের নাগপাশ থেকে মুক্ত হই। আর সম্মানের মৃত্যুকে অবমাননার জীবনের ওপর প্রাধান্য দেই।—–বিখ্যাত ইংরেজ লেখক ও পর্যটক মরিস ডু কিবরি:

আরো পড়ুন,

মহরম কত তারিখে ,আশুরা কবে। উক্তি, আশুরা 

ভোটার আইডি কার্ড চেক করার নিয়ম – এনআইডি কার্ড সংশোধন

Liton Roy

আমি লিটন রায়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলা বিভাগ হতে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর ডিগ্রি সম্পন্ন করে 2018 সাল থেকে সমাজের অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক, সামাজিক,মানবিক দৃষ্টিভঙ্গি অবলোকন করে- জীবনকে পরিপূর্ণ আঙ্গিকে নতুন করে সাজানোর আশাবাদী। নতুনের প্রতি মানুষের আকর্ষণ চিরস্থায়ী- তাই নবরুপ ওয়েবসাইটে নিয়মিত লেখালেখি করি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *