অনলাইন তথ্য

অনলাইনে জিডি করার নিয়ম , জিডি করতে কি কি লাগে

অনলাইনে জিডি করার নিয়ম,যদি আমরা কিছু হারিয়ে ফেলি বা আমাদের জীবন বাদ দেওয়ার হুমকিতে থাকি। যদি আমি আর স্বাভাবিকভাবে হাঁটতে না পারি তবে আমাদের পুলিশের মাধ্যমে গ্রেপ্তার করতে হবে এবং এর জন্য একটি সাধারণ ডায়েরি/জিডি করতে হবে। তবে অনেক মানুষ থানায় যেতে পারে না বা যাদের জীবন হুমকির মুখে তারা থানায় যেতে ভয় পায়।

এই ঝামেলা দূর করতে বাংলাদেশ কর্তৃপক্ষ অনলাইন জিডি করার ক্ষমতা চালু করেছে। আজকাল এই রেকর্ডে আমি অনলাইন জিডির নির্দেশিকা প্রদর্শন করব।

অনলাইনে জিডি করার নিয়ম

অনলাইনে জিডি,প্রথমে আপনাকে প্লে স্টোর থেকে অনলাইন জিডি নামক সফ্টওয়্যারটি স্থাপন করতে হবে। এর পরে আপনাকে আপনার মোবাইল নাম্বার প্রবেশ করে নিবন্ধন সম্পূর্ণ করতে হবে এবং পাসওয়ার্ড মনে রাখবেন এবং অন্যান্য নির্দেশাবলী অনুসরণ করতে হবে। তারপর নির্ধারিত ডেস্কে তথ্য পূরণ করুন এবং নেট জিডি রেকর্ড ইনপুট করুন। আপনি যদি নিবন্ধন বিকল্পে যান, আপনি ৪ টি বড় বিকল্প পাবেন। দেশব্যাপী পরিচয়পত্র, জন্ম সনদ, পাসপোর্ট এবং বিদেশী পাসপোর্ট রয়েছে। তবে এরই মধ্যে জাতীয় পরিচয়পত্রের পরিসংখ্যানে নিবন্ধন সম্পন্ন করা হচ্ছে।

জিডি করতে কি কি লাগে

দেশব্যাপী nid কার্ড বিকল্পে যাওয়ার মাধ্যমে, জাতীয় পরিচয়পত্রের বৈচিত্র্য, শুরুর তারিখ এবং পরিচয়পত্র স্থাপন করতে হবে এবং ভোক্তাকে জেলা থানা, ইউনিয়ন গ্রামের সাথে সম্পর্কিত তথ্য এবং তথ্য সরবরাহ করতে হবে। ঘটনা অনলাইন জিডি পদ্ধতি সম্পন্ন হওয়ার পরে ব্যক্তি ক্যারিয়ার কোড পাবেন। একটি সংক্ষিপ্ত সময়ের মধ্যে আপনি অ্যাপের মাধ্যমে অনলাইনে QR কোড সহ ONLINE GD-এর কপি অর্জন করতে এবং মুদ্রণ করতে সক্ষম হবেন। সফ্টওয়্যার ছাড়াও অনলাইনে GD GD.POLICE.GOV.BD করা যেতে পারে।

>>>> আপনার জাতীয় পরিচয় পত্রের নম্বর

>>>> আপনার সচল মোবাইল নম্বর

>>>> আপনার জন্ম তারিখ

>>>> আপনার পরিচয় নিশ্চিত করার জন্য এসএমএস এর মাধ্যমে একটি কোড আপনার দেওয়া মোবাইল নম্বরে পাঠানো হবে ।

সিডি এমএম যে ১৩ টি ফিচার রয়েছে

১. অনলাইন জিডি

২. জিডি সংশ্লিষ্ট অনুসন্ধান ও তদারকি কার্যক্রম

৩. হারানো ও প্রাপ্তি সংক্রান্ত ম্যাচিং রেকর্ড উপকারভোগীকে স্বয়ংক্রিয়-অবহিতকরণ

৪. অশনাক্ত লাশ শনাক্তে ফটো-ম্যাচিং সুবিধা

৫. মৃতের শরীরের বিভিন্ন অংশের ৩২টি ছবিসহ ভয়েস-টাইপে স্বয়ংক্রিয় সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি৷

৬. ডিজিটাল মানচিত্রে সন্দেহভাজনদের আবাসন চিহ্নিতকরণ

৭. বিট পুলিশিংসহ টহল দলের গতিবিধি অনলাইন-মানচিত্রে সরাসরি নিরীক্ষণ।

৮. অটো আপডেটিং পুলিশ ফোনবুক

৯.পুলিশের ছুটি ও সিসি ব্যবস্থাপনা

১০.পুলিশের দক্ষতা-পরিমাপক কর্ম-মূল্যায়ন ব্যবস্থা

১১.পুলিশের সুষম দায়িত্ব বন্টন ব্যবস্থা

১২. পুলিশের জন্য সিমবিহীন বহুমুখী আন্তঃযোগাযোগ ব্যবস্থা

১৩. অবস্থান চিহ্নিতকরণ ও লাইভ-ফটো ম্যাচিং সুবিধাসহ পুলিশের ডিজিটাল হাজিরা।

বর্তমানে অনলাইন জিডি সার্ভিসটি পরীক্ষামূলকভাবে শুধু ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের সূত্রাপুর, কলাবাগান ও ক্যান্টনমেন্ট এবং ময়মনসিংহ জেলার সদর ও ভালুকা থানা এলাকায় চালু আছে। এর বাইরে অন্য যেকোন থানায় হারানো অথবা প্রাপ্তি সংক্রান্ত জিডি সশরীরে থানায় গিয়ে করতে হবে।

আরো পড়ুন,

ইসলামী ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম ও সুবিধা-

পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টার, এর সকল শাখা সমূহের নাম,ফোন নম্বর এবং অবস্থান।

হাত ধরা পিক, রোমান্টিক হাত ধরা পিক, ক্যাপশন

Liton Roy

আমি লিটন রায়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলা বিভাগ হতে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর ডিগ্রি সম্পন্ন করে 2018 সাল থেকে সমাজের অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক, সামাজিক,মানবিক দৃষ্টিভঙ্গি অবলোকন করে- জীবনকে পরিপূর্ণ আঙ্গিকে নতুন করে সাজানোর আশাবাদী। নতুনের প্রতি মানুষের আকর্ষণ চিরস্থায়ী- তাই নবরুপ ওয়েবসাইটে নিয়মিত লেখালেখি করি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *